আনমনে, মনে মনে

Posted: মার্চ 4, 2018 in গদ্য হাবিজাবি
ট্যাগসমূহ:, ,

1-040

একেকটা দিন বড় অদ্ভুত কাটে। জানালা দিয়ে বাইরে তাকালেই দেখি একরাশ রোদ এসে নিমগাছটার সঙ্গে এক্কা-দোক্কা খেলছে। তবে, এ তো আর আমাদের মতন খেলা না, তাই এই-আছে-এই-নেই করে হিলিবিলি কেটে যাচ্ছে আলো আর ছায়া, মাটি’র গায়ে, দেওয়ালে। একটা বড় ডুমো নীলমার্কা মাছি, অল্প অল্প করে এগিয়ে যাচ্ছে প্রায়-অদৃশ্য মাকড়শা’র জাল-এর দিকে; একটু যায়, আবার থামে। “Will you walk into my parlour?” কী মোহ, কী মায়া– এরকম-ই তো সবকিছু। ছেড়ে যেতে খুব নাকি কষ্ট হয়। মাছিটা-কে ভাগ্যের হাতে ছেড়ে দিই, উড়িয়ে দিতে পারতাম অবশ্য-ই। এক-মুখ-ভর্তি জল নিয়ে জোরে টিপ করে কুলকুচি করলেই হত। কত্ত করেছি ছোটবেলায়। তারপর নাম-পাতাপাতি, রুমাল-চোর, ডাংগুলি, এই কুমির, জল্‌কে যাবি? —

ফেরা যায় না আর। মাছিটা’র মত-ই… এগিয়েই যেতে হবে। জাল-টা কাছে আসে আস্তে আস্তে, দৃশ্যমান হয়। মাছিটা হয়ত বুঝতে পারে, ফিরতে চায়… নাকি চায় না…

নষ্টালজিয়া’র সমাস কী? নষ্ট হল জিয়া?

Advertisements
মন্তব্য
  1. Ibn Ahmed বলেছেন:

    লেখাটা ভালো লাগছে 🙂

  2. Jyotirmoy Sarkar বলেছেন:

    দারুন Interpretation, “Nostalgia” শব্দের .এত সুন্দর ব্যাখ্যা আগে শুনিনি।
    তোমার এই বাংলা ব্লগে হারিয়ে যাওয়া বাংলা ভাষা কে খুব সুন্দর ভাবে পাওয়া যায়।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.